x 
Empty Product
Sunday, 09 June 2013 18:44

সাতক্ষীরায় বড় বাজারে আমের সরবারহ প্রতিদিন হাজার হাজার মন

Written by 
Rate this item
(0 votes)

জৈষ্ট্যে মাস মধুর মাস।আর এ মধু মাসে সাতক্ষীরার ফলের আড়তগুলোতে আমের জমজমাট কেনাবেচা হচ্ছে। গতকাল বড় বাজার ঘুরে দেখা গেছে আড়তগুলোতে শুধু আম আর আম।প্রতিদিন হাজার হাজার মন বিভিন্ন প্রজাতের কাঁচা পাঁকা আম বিক্রি হচ্ছে। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে পাইকাররা সাতক্ষীরায় আসছেন আম সংগ্রহ করতে। তারা এখানকার আম কিনে তা আবার ঢাকা চট্টোগ্রাম সহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় সরবরাহ করছে। তবে গত বছেরের তুলনায় এবার সাতক্ষীরায় আমের আমদানি যেমন বেশি তেমন দাম ও কম ।

আমের সরবারহ এত বেশি কেন জানতে চাইলে ব্যাবসায়ীরা জানান, আবহাওয়া বিরুপ প্রভাবের কারণে যারা আম গাছ কিনে রেখেছেন তারা আগে ভাগে কাচা আম পেড়ে বিক্রি করে দিচ্ছেন।

গতকাল সাতক্ষীরা শহরের সুলতানপুর বড় বাজার ফল ও কাচামাল বিক্রির আড়তগুলোতে ঘুরে দেখা গেছে বিপুল পরিমান আমের আমদানি। এরমধ্যে হিমসাগর, গোবিন্দভোগ, গোপালভোগ, সিদুররাঙ্গা, লতা ও দেশী বোম্বাই উল্লেখযোগ্যা। সরবরাহ বেশির কারনে এবার পাইকারীতে আমের দাম গত বছরের তুলনায় অনেকাংশে কম বলে জানান ব্যবসায়ী ও আড়তদাররা।

সুলতানপুর বড় বাজারের কাঁচা মালের আড়ত মর্জিনা ভান্ডারে হিমসাগর আম বিক্রি হয়েছে প্রতি মন পাইকারী ১ হাজার ৭০০ থেকে ১ হাজার ৮০০ টাকা, গোবিন্দভোগ ১ হাজার ৫০০ থেকে ১ হাজার ৬০০ টাকা দরে। এছাড়া সিদুর রাঙ্গা ১ হাজার থেকে ১ হাজার ২০০ টাকা ও অন্যান্য আম ৯০০ শত থেকে ১ হাজার টাকা পর্যন্ত বিক্রি হয়েছে। তবে গত বছর এসময় হিমসাগর আম বিক্রি হয়েছে প্রতি মন পাইকারী ২ হাজার থেকে ২ হাজার ৪০০ টাকা ও গোবিন্দভোগ ২ হাজার থেকে ২ হাজার ২০০ টাকা দরে। আড়তদার কামরুল ইসলাম জানান, গত বছরের তুলনায় এবার সাতক্ষীরাতে আমের সরবরাহ খুব বেশি। তাছাড়া জেলায় আমের উৎপাদন অনেক ভালো। যে কারনে আমের দামটাও কিছুটা কম এবার। পাইকারী আম ব্যবসায়ী নারায়নগঞ্জের জাহাঙ্গীর আলম জানান, গতকাল সুলতানপুর বড় বাজার থেকে বিভিন্ন প্রজাতির ৩ হাজার মন আম ক্রয় করেন তিনি। তিনি জানান, এসব আম ঢাকা ও চট্ট্রোগ্রাম সহ বিভিন্ন এলাকাতে সরবরাহ করবেন। তিনি জানান, প্রতি বছরেই সাতক্ষীরা জেলা থেকে আম কিনে তা দেশের অন্যন্য জেলায় বিক্রি করেন।

সাতক্ষীরা জেলা কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তর থেকে জানা যায়, চলতি মৌসুমে জেলায় সাতটি উপজেলাতে ৩ হাজার ৭২০ হেক্টর জমিতে বিভিন্ন প্রজাতির আম চাষ করা হয়েছে। এরমধ্যে সাতক্ষীরা সদরে ১ হাজার ২৮১ হেক্টর, উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ১২ হাজার ৮১০ মেট্রিকটন, কলারোয়ায় ২৭৫ হেক্টর উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ৩ হাজার ৩০০ মেট্রিকটন, তালায় ৬২৭ হেক্টর উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ৭ হাজার ৫২১ মেট্রিকটন, দেবহটায় ৩৯৮হেক্টর উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ৫ হাজার ৯৭০ মেট্রিকটন, কালিগঞ্জে ৮৮৭ হেক্টর উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ১০ হাজার ৬৪৪ মেট্রিকটন, আশাশুনিতে ১২০ হেক্টর উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ১ হাজার ২০০ মেট্রিকটন ও শ্যামনগরে ১৩২হেক্টর উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা। তবে এবার সাতক্ষীরায় আমের ফলন যা তাতে করে উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে বলে আশা করছেন জেলা কৃষি সম্প্রাসরন অদিপ্তর।

Read 740 times Last modified on Tuesday, 03 September 2013 04:46

Leave a comment

Make sure you enter the (*) required information where indicated. HTML code is not allowed.